সমস্যা সমাধানের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার কৌশল।

0
176
Apple iPhone 11 Pro Max, 256GB, Fully Unlocked - Gold

সমস্যাকে চিন্তিত করে আপনি যখন একটি ছক আঁকবেন, আপনার চোখ খুলে যাবে। আমরা এই ভাবে দেখি না কেন? যারা নিচের ছকটাকে এই ভাবে দেখে বা আয়ত্ব করতে পারছে তারা আজ সফল। তাহলে আপনিও দেখবেন না কেন সফল হওয়ার জন্য, বিজয়ীদের দলে নিজেকে দেখতে কে না চাই শুধু মন মানসিকতা থাকা প্রয়োজন। যা আপনাকে এনে দেবে জনতার ভিড় থেকে অন্য একটা সারিতে, তখন নিজেকে দেখতে পাবেন কোথায় ছিলেন এখন কোথায় আছেন।

সমস্যা
            ⇓
সুযোগ↵          ⇐চ্যালেঞ্জের ফর্ম

“সমস্যা => চ্যালেঞ্জের ফর্ম => সুযোগ” -যেখানে যত সমস্যা সেখানে তত সুযোগ।

সবার কাছে এরকম কথা প্রায়শই শুনে থাকবেন। ” আমার জীবন অনেক সমস্যায় পরিপূর্ণ । যখন আমি নিজে একটি কিছু সমাধান করি তখন নিজেকে অন্য একটি সমস্যায় পড়ি। ওহ God !! কেন এটি সর্বদা আমার সাথে হয়?” এভাবেই আমরা নিজেকে নিজে জীবনে বাধার কথা বলতে থাকি এবং দোষারোপ করি।
আমরা জীবনের অনুকূল এবং প্রতিকূল পরিস্থিতিতে চারপাশে সাথে বড় হয়। আমাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী সবকিছু না হতে পারে। যাইহোক, যখন এরকম কোন ঘটনা নিজের মন মত হয় না বা যখন আমরা পরিস্থিতি গুলির সাথে লড়াই করি তখন আমরা সেগুলিকে একটি সমস্যা হিসাবে দেখি।

এখানে একটি কারণের জন্য সবকিছু ঘটে খাকে।আমরা আমাদের চারপাশে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না, তবে আমরা কীভাবে পরিস্থিতি প্রভাবিত করতে হয় তা স্থির করতে পারি।আসুন দেখে নিই আমরা কীভাবে জীবনের সমস্যা নামক পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারি।

প্রথমত: সমস্যা কোনও সমস্যা নয় :
সমস্যা এবং বাধা সবার জীবনে থাকবে। আপনি বেঁচে থাকতে হলে এগুলি এড়াতে পারবেন না। আমরা যা করতে পারি তা হলো আমরা সমস্যার সাথে মোকাবিলা করার জন্য আমাদের দৃষ্টিভঙ্গিটি পরিবর্তন করতে পারি।
As Theodore Rubin Said, The problem is not there are problems. The problem is expecting otherwise and thinking that having problems is a problem.

যখনই জীবন আপনি কোনও সমাস্যায় পড়বেন, নিজেকে এই একটি সূত্র মনে করিয়ে দিন:
“সমস্যা => চ্যালেঞ্জের ফর্ম => সুযোগ” – সমস্যা যেখানে সুযোগ আছে সেখানে।

সমস্যাগুলি চ্যালেঞ্জের একটি ফর্ম:
পরিস্থিতি যখন আমাদের গন্ডির আওতায় বা নিয়ন্ত্রনে থাকে তখন যে কেউ শান্ত ও সুখী থাকতে পারে। অন্ধকারে চলাচল করতে যেমন সাহস লাগে, তেমনি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার জন্য সাহসিকতা পরিচয় দিতে হয়।
আপনার জীবনের যে কোন সমস্যার কথাই ধরুন। যেমন-

  • আপনি কি চাকরি পেতে লড়াই করছেন?
  •  আপনার সাথে কেউ কি কোন সম্পর্কে জড়াতে চাচ্ছে না ?
  •  আপনি কোন আর্থিক সংকট সম্মুখীন?
  •  আপনার ব্যবসা বা কাজ বা পারিবারিক জীবনে আপনার কি অসুবিধা হচ্ছে?

এই সমস্যাগুলির মোকাবেলা করা আপনার সাহসিকতা পরিচয় দেয়। এগুলি ভাল করে দেখুন, এক একটা চ্যালেঞ্জের ফর্ম। আপনি কীভাবে এই চ্যালেঞ্জগুলির মুখোমুখি করবেন তা হলো আমাদের অভ্যন্তরীণ শক্তি নির্ধারণ করে।
“The ultimate measure of a man is not where he stands in moments of comfort and convenience, but where he stands at times of challenge and controversy.”-Martin Luther King, Jr.
“একজন মানুষকে কখনো পরিমাপ করা যায় না, যখন তিনি আরাম এবং সুবিধার মুহূর্তে সময় দাঁড়িয়ে থাকেন, কিন্তু কোন সমস্যা মোকাবিলা করে যেখানে তিনি চ্যালেঞ্জ এবং বিতর্কের সময়ে দাঁড়িয়ে থাকেন তখন তাকে পরিমাপ করা যায়।”-মার্টিন লুথার কিং, জুনিয়র।

আপনি কি জানেন আমাদের মনের জোর এবং কথার চিন্তা ভাবনা আমাদের মানসিকতায় বিশাল পার্থক্য আনে। একবার আমরা “সমস্যা” শব্দটি “চ্যালেঞ্জ” দিয়ে প্রতিস্থাপন করি তাহলে আমরা আরও সাহসের সাথে পরিস্থিতির মুখোমুখি করতে পারি।

Vedio : You Can Win 

চ্যালেঞ্জকে সুযোগ হিসাবে দেখুন:
প্রতিটি চ্যালেঞ্জ হলো বড় হওয়ার বা সামনে এগিয়ে যাওয়ার একটি সুযোগ । এগুলিকে এড়িয়ে চলা বন্ধ করুন। সমস্যা গুলাকে মোকাবেলা করার ফলে আপনি হয়ে উঠবেন দক্ষ, আরও ভাল ভবিষ্যতের দিকে মই হিসাবে কাজ করবে এবং আপনাকে গড়ে তুলবে অন্য দশজন থেকে আলাদা।

কোবে ব্রায়ান্ট একবার বলেছিলেন, “নেতিবাচক – চাপ, চ্যালেঞ্জগুলি – সবই আমার জন্য ওপরে ওঠার একটি সুযোগ হিসাবে দেখি।”
এটি সবার জন্য সত্য। আপনার ক্ষমতা আছে, সময় আছে। জীবনের চ্যালেঞ্জগুলি গ্রহণ করুন। তাদের পর্যালোচনা করুন এবং দেখুন মূল কারণগুলি কি। আপনি আপনার র্দূবল পয়েন্টটি সনাক্ত করার পরে আপনি এটিকে কাজে লাগান। যা আপনি নিজের থেকে সেরাটি পেতে পারেন।
“আমি আপনার আরাম পরিবেশ থেকে বেরিয়ে আসতে আজ আপনাকে চ্যালেঞ্জ জানাতে চাই। আপনার ভিতরে ভিতরে এত অবিশ্বাস্য সম্ভাবনা রয়েছে। ইশ্বর আপনার মধ্যে এমন উপহার এবং প্রতিভা রেখেছেন যা সম্পর্কে সম্ভবত আপনি কিছু জানেন না ”-জোয়েল ওস্টিন
আপনি যদি চাকরিতে ভাল না করে থাকেন তবে দেখুন আপনার কোন দক্ষতার অভাব রয়েছে। আপনি যদি কোনও সম্পর্কের সাথে আটকে থাকেন, তবে অনুপস্থিত ফ্যাক্টরটি ধরুন। আপনি কোন কিছু ইচ্ছে করলে এটা এমন কিছু অসম্ভব না।

জনতার বাইরে দাঁড়ানো:
আপনার মত একই সমস্যায় কয়েক মিলিয়ন মানুষ থাকতে পারে। তাদের বেশিরভাগ মানুষ কী সমস্যা মোকাবেলা করার চেষ্টা করে? তারা কেবল পরিস্থিতিতে প্রতিক্রিয়া জানায় এবং চ্যালেঞ্জগুলি এড়ানোর চেষ্টা করে।
তবে, বিজ্ঞ ও বিচক্ষণ ব্যক্তিরা তা করেন না। তারা ব্যাপার গুলি আলাদাভাবে চিন্তা করে। প্রতিক্রিয়া পরিবর্তে, তারা পুনর্বিবেচনা করে এবং কাজ করে। তারা নিজের মনকে জেড়ে নিয়ে উঠে পড়ে লাগে, প্রতিটি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়। আপনি তখন নিজেকে ভিড়ের বাইরে দাঁড়িয়ে দেখতে পাবেন, আপনি কোথায় আছেন।
“There are no great people in this world, only great challenges which ordinary people rise to meet.” ~ William Frederick Halsey, Jr

জীবন আপনাকে চ্যালেঞ্জ জানানোর আগে আপনি জীবনকে কেন চ্যালেঞ্জ করবেন না?
প্রায়শই আমরা বিদ্যমান কোন কাজ, সম্পর্ক বা ব্যবসায় নিরাপদ থাকতে চাই। যাইহোক, এই নিরাপদ বা স্বাচ্ছন্দ্যময় জায়গাটি আমাদের সময়ের সাথে র্দূবল করে তোলে। জীবন আপনাকে আপনার নিরাপদ পরিবেশ বা অঞ্চল থেকে দূরে সরিয়ে দেবে। এটি জীবনের প্রকৃতি এবং আমাদের এটি মানতে হবে।
“I have learned in my life that it’s important to be able to step outside your comfort zone and be challenged with something you’re not familiar or accustomed to. That challenge will allow you to see what you can do.” -J. R. Martinez

আমি বরং আপনাকে আগেই একটা পদক্ষেপ নিতে বলব। জীবন আপনাকে চ্যালেঞ্জ দেওয়ার আগে আপনি কেন পরবর্তী সময়ের জন্য নিজের জীবনকে চ্যালেঞ্জ করবেন না? আপনি আপনার ব্যবসা / চাকরি / পরিবারের জন্য অতিরিক্ত কী করতে পারেন তা দেখুন। এইভাবে আপনি জীবনে পরিবর্তনগুলি উপভোগ করতে সক্ষম হবেন এবং কোনও পরিস্থিতি / চ্যালেঞ্জ আপনাকে ক্ষতি করতে পারবে না।
শেষকথা একটাই-
“Challenges will never come to end. Why do not start enjoying them.”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here